সুন্দর একটি দিন

in burn •  14 days ago 
Picsart_24-06-30_17-35-51-178.jpg

বন্ধুরা বর্তমান সময়ে রাতে ঘুমাতে বেশ দেরি হয় যার ফলে সকালে উঠতে ও দেরি হয়ে থাকে। গতকালকে ঘুম থেকে উঠেছিলাম প্রায় দশটার দিকে আর ঘুম থেকে উঠে ফ্রেশ হয়ে সকালের খাবার খেয়ে রুমে কিছু সময় বসে থাকে একটু বাইরে বের হয়।

IMG_20240629_173004.jpg

আর বাহিরে বের হয়ে দেখি আকাশ একদম মেঘলা মনে হচ্ছে এখনই বৃষ্টি নামবে। ঈদের পর থেকেই বৃষ্টি শুরু হয়েছে মাঝে কয়েক দিন ভালো গেলেও আবারো এই বৃষ্টি শুরু হয়েছে, মনে হচ্ছে আর থামবে না। কিছু সময় বাইরে কাটিয়ে বাসায় আসতে না আসতেই বৃষ্টি শুরু হয়ে যায়। রাতে বৃষ্টি না হলেও দিনের বেলা প্রতিদিনই বৃষ্টি হচ্ছে।। আর এই বৃষ্টি দেখতে দেখতে বৃষ্টির প্রতি অনীহা চলে আসছে। সবকিছুই সৃষ্টিকর্তার মাধ্যমে ঘটে থাকে, তাই আমাদের দেখা ছাড়া কোন কিছু করার নেই।।

IMG_20240629_173136.jpg

যাইহোক তার কিছু সময় পরেই বৃষ্টি থেমে যায় পরে প্রতিদিনের মতোই দুপুরে গোসল করে নেয়। আর গোসল করা হলে কিছু সময় বাইরে গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকি। বর্তমান সময়ে বাসায় তেমন কাজ নেই তাই সারাদিন শুয়ে বসে দিনপার হয়।

IMG_20240629_173314.jpg

পরে বাইরে থেকে এসে দুপুরের খাবার খেয়ে বোনের সাথে বসে কিছু সময় গল্প করি, আলহামদুলিল্লাহ বোন এখন অনেকটাই সুস্থ আছে। তার কিছু সময় পরেই প্রতিদিনের মতো দুপুরে ঘুমিয়ে যায়। বর্তমানে আবহাওয়া ঠান্ডা তাই দুপুরে শুয়ে পড়লেই ঘুম চলে আসে। আর আগে থেকেই একটা অভ্যাস আছে দুপুরে ঘুমানো। অনেক সময় ব্যস্ততার জন্য ঘুমানো হয় না কিন্তু চেষ্টা করি প্রতিদিনই একটু হলেও দুপুরে ঘুমাতে।

IMG_20240629_173217.jpg
IMG_20240629_173203.jpg

পরে বিকাল মুহূর্তে ঘুম থেকে উঠে ফ্রেশ হয়ে একটু বাইরে যাই। আর আমার একটা ফুফাতো ভাই এসেছে পরে সে আমাকে ডাকতে ছিল। তাই আমি একটু ছাদে উঠি আর ফুফাতো ভাইয়ের সাথে কিছুক্ষণ দুষ্টামি করি। ও ঢাকায় থাকে ঈদের মধ্যে এসেছে এখনো যায়নি আরো কিছুদিন থাকবে হয়তো। আর আমার চাচাতো ভাই ও ছাদে ছিল পরে তিনজনে মিলে অনেকক্ষণ গল্প করি।

আমার ফুফাতো ভাইয়ের মা বাবা ও ঢাকা থাকে আরও ছোট থেকে ঢাকাতে বড় হয়েছে। আর এখন গ্রামে আসলে আর যেতে চায় না, ওর কাছে মনে হয় শহরের চাইতে গ্রাম অনেক ভালো। যাইহোক পরে সেখান থেকে বাসায় চলে আসি আর বাসায় এসে কিছু সময় শুয়ে থেকে ফোন দেখি।

IMG_20240629_173241.jpg

তার একটু পরে, বোন দেখি ডাকতেছে পরে ওর কাছে যায় আর যেয়ে দেখি লটকন খাচ্ছে। পরে আমিও বসে বোনের সাথে লটকন খাই। অনেকদিন পর লটকন খাচ্ছি, ভালোই লাগতে ছিল খেতে। আমাদের বাসায় একটা লটকন গাছ ছিল কিন্তু হঠাৎ করে গাছটা মারা যায়। তাই এখন বাজার থেকে কিনে খেতে হয়।

তো বন্ধুরা আজকের মত এখানে বিদায় নিচ্ছি সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন ধন্যবাদ।

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE BLURT!